৩০০ বছরের বাউল দাসের কেন্দুলি মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদন, কাঁকসা: প্রায় ৩০০ বছর ধরে কাঁকসার সিলামপুরে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে বাউল দাসের কেন্দুলি মেলা।
কবি জয়দেবের শিষ্য ছিলেন বাউল দাস। গত কয়েকশো বছর আগে কাঁকসার সিলামপুরে বাউল দাস নিজের আখড়া তৈরি করেন। সেখানেই বসবাস করতেন। গ্রামের মানুষ জানিয়েছেন, গত প্রায় ৩০০ বছর আগে এলাকায় মেলার আয়োজন করেন এলাকার মানুষ। সেই দিন থেকে প্রতি বছরের মতো এখনও মহা ধুমধামে মেলার আয়োজন হয়ে আসছে। মকর সংক্রান্তির দিন বেলা বারোটা থেকে মেলা শুরু হয়, মেলা চলে সাতদিন। নানান ধর্মীয় অনুষ্ঠানের পাশাপাশি সাংßৃñতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় মেলা প্রাঙ্গণে। এলাকার মানুষ জানিয়েছেন, বহু দূর-দূরান্ত থেকে মানুষ এই মেলায় ভিড় জমান।
কথিত আছে, দামোদর নদে মকর সংক্রান্তির দিন পূণ্য স্নান সেরে কেন্দুলি মেলা প্রাঙ্গণে মহাদেব ও কালীর মন্দিরে পুজো দিলে অনেকেরই শরীরের রোগ সেরে যায়। সেই বিশ্বাস নিয়েই হাজার হাজার মানুষ প্রতি বছর মেলা প্রাঙ্গণে আজও ভিড় জমান। তবে এই মেলার মূল আকর্ষণ হল, এখানে মাটির তৈরি মডেল দিয়ে বর্তমান পরিস্থিতি, নানা দেবদেবী ও পৌরাণিক কাহিনীর চরিত্র ফুটিয়ে তোলা হয়। এটি দর্শনার্থীদের কাছে মূল আকর্ষণ হয়ে ওঠে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *